শান-বাবরের সেঞ্চুরিতে শক্ত অবস্থানে পাকিস্তান

প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২০

সাদামাটা বোলিং, ক্যাচ ফসকানো, দৃষ্টিকটু ভুলে পরা বাংলাদেশের বোলিং-ফিল্ডিং মাড়িয়ে দারুণ এক দিন পার করেছে পাকিস্তান। শান মাসুদ আর বাবর আজমের সেঞ্চুরিতে অনায়াসে লিড নিয়ে বড় সংগ্রহের পথে তারা। ভুলে ভরা হতাশায় মোড়া দিনে মুমিনুল হকরা পুড়ছেন প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতায়।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে করা ২৩৩ রানে জবাবে পাকিস্তানের শুরুটা ভালো না হলেও দ্বিতীয় দিন শেষে স্কোরকার্ড স্বাগতিকদের জয়গানই গাইছে। ৩ উইকেটে ৩৪২ রান তুলে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে পাকিস্তান। ওপেনার শান মাসুদ ১০০ রান করে আউট হলেও ১৪৩ রানে অপরাজিত আছেন দলটির অন্যতম ব্যাটিং ভরসা বাবর আজম। ৬০ রানে অপরাজিত আছেন আসাদ শফিক।

ব্যাটিংয়ে নাজেহাল অবস্থা হলেও বল হাতে শুরুটা মন্দ ছিল না বাংলাদেশের। দলীয় ২ রানেই পাকিস্তানের ওপেনার আবিদ আলীকে ফিরিয়ে দেন আবু জায়েদ রাহি। ডানহাতি এই পেসারের বলে লিটন দাসের হাতে ক্যাচ দেন আবিদ। এমন শুরুর সুবিধা নিতে পারেননি বাংলাদেশের বোলাররা। রুবেল-এবাদতরা চেপে ধরতে পারেননি প্রতিপক্ষকে।

শুরুর চাপ মুহূর্তেই জয় করে নেন শান মাসুদ ও অধিনায়ক আজহার আলী। দ্বিতীয় উইকেটে ৯১ রানের জুটি গড়েন এ দুজন। এ সময় পুরো ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করতে থাকেন তাঁরা। বিশেষ করে শান মাসুদের ব্যাটিংয়ের সামনে অসহায় হয়ে পড়ে বাংলাদেশের বোলিং লাইন আপ। ২২.১ ওভারেই পাকিস্তানের স্কোরকার্ডে জমা হয় ৯৩ রান।

দলের দুঃসময়ে আবারও কান্ডারির ভূমিকায় হাজির হন আবু জায়েদ। ৩৪ রান করা পাকিস্তানের অধিনায়ক আজহার আলীকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন তিনি। অবশ্য এরপর আবারও পাকিস্তানের ব্যাটিং শো। শান মাসুদের সঙ্গে যোগ দিয়ে দলের স্কোরকার্ডকে সমৃদ্ধ করেতে থাকেন বাবর আজম।

এই জুটিতে ২০০ ছাড়িয়ে যায় পাকিস্তান। সেঞ্চুরি তুলে নেন শান মাসুদ। টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে আর টিকতে পারেননি তিনি। ১৬০ বলে ১১টি চারে ১০০ রান করা শানের স্টাম্প ভেঙে দেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশের সাফল্য এতোটুকুই। সাবলীল ব্যাটিংয়ে দিনের বাকি অংশ কাটিয়ে দেন বাবর ও আসাদ।

যদিও স্কোরকার্ডের চেহারা অন্যরকম হতে পারতো। ব্যক্তিগত দুই রানেই ক্যাচ তুলেছিলেন দ্বিতীয় দিন শেষে ১৪৩ রানে অপরাজিত থাকা বাবর। কিন্তু তাইজুলের বলে বাবরের তোলা ক্যাচটি নিতে পারেননি এবাদত। যেটার খেসারত সারাদিন ধরে দিতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

বাংলাদেশের বোলারদের বিপক্ষে পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা কতোটা সাবলীল ছিল, সেটা বুঝতে খেলা না দেখে স্কোরকার্ডে চোখ রাখলেও চলছে। ৮২.৫ ওভারে ২৩৩ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। এর চেয়ে মাত্র ৫ ওভার বেশি (৮৭.৫ ওভার) ব্যাটিং করে পাকিস্তান তুলেছে ৩৪২ রান। ব্যবধানটা স্পষ্ট। বাংলাদেশের বোলাররা যে কোনো চাপ তৈরি করতে পারেনি, সেটাও বলা বাহুল্য।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(দ্বিতীয় দিন শেষে)

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ২৩৩

পাকিস্তান  প্রথম ইনিংস: ৮৭.৫ ওভারে ৩৪২/৩ (শান ১০০  , আবিদ ০, আজহার ৩৪, বাবর ব্যাটিং ১৪৩*, আসাদ ব্যাটিং ৬০* ;  ইবাদত ০/৭৮, জায়েদ ২/৬৬, রুবেল ০/৭৭, তাইজুল ১/১১১, মাহমুদউল্লাহ ০/৬)